Call us Today ! 01705613656 | E-Mail : [email protected]

ক্যাসপারস্কি এন্টিভাইরাস ব্যাবহার করে আমেরিকায় হ্যাকিং কার্যক্রম চালিয়েছিলো রাশিয়া!!

বিশ্বব্যপী প্রায় ৪০০ মিলিয়ন মানুষ রাশিয়ায় তৈরী এন্টিভাইরাস ক্যাপারস্কি ব্যবহার করে। রাশিয়ান সরকারী হ্যাকারদের উপর গোয়েন্দাগিরি করে ইসরায়েলী গোয়েন্দা কর্মকর্তারা জানতে পেরেছেন, তারা ক্যাসপারস্কি অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যারের মাধ্যমে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি সংস্থা সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও মানুষের উপর গোয়েন্দাবৃত্তি করে।ইসরায়েলের গোয়েন্দাদের মতে, রাশিয়ানরা কম্পিউটারে রাখা গোপন তথ্যগুলো এ সফটওয়ারের মাধ্যমে জনতে পারে। এজন্য কম্পিউটার থেকে এ সফটওয়ারটি সরানোর কথা বলা হয়েছে।নিউইয়র্ক টাইমস জানায়, একজন জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থা কর্মচারীর কাছ থেকে কিছু নথিপত্রের তথ্য চুরি করা হয়েছে যা তার বাড়ির নিজস্ব কম্পিউটারে সংরক্ষণ করা ছিল এবং এ কম্পিউটারটিতে ক্যাসপারস্কি অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়ার ইনস্টল ছিল।
যুক্তরাষ্ট্রীয় গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর মতে, রাশিয়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে এই হ্যাকিং পদ্ধতির মাধ্যমে বিরূপ প্রভাব ফেলে। গত মাসে ওয়াশিংটনে রাশিয়ার দূতাবাস ক্যাসপারস্কি ল্যাব সফটওয়্যারের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে যেন দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক পুনঃস্থাপনে এটি ব্যঘাত ঘটাতে না পারে।
মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা এজেন্সি (এনএসএ)-র একজন কর্মী তার বাড়ির কম্পিউটারে ক্যাসপারস্কি অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার বসিয়েছিলেন – তার বাড়ির কম্পিউটার থেকেই বহু গোপনীয় নথিপত্র চুরি হয়েছে বলেও ধারণা করা হচ্ছে।
তবে এনএসএ, হোয়াইট হাউস বা ওয়াশিংটনে ইসরায়েলি দূতাবাস এ ব্যাপারে কোনও মন্তব্য করেনি।নিউ ইয়র্ক টাইমস জানাচ্ছে, তারা রাশিয়ার দূতাবাসকে এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানাতে অনুরোধ করেছিল – কিন্তু তারা সেই অনুরোধের কোনও জবাব দেয়নি।আর ক্যাসপারস্কি সংস্থার পক্ষ থেকেএকটি বিবৃতি জারি করে এই গোটা ঘটনায় তাদের কোনও দায় নেই বলে দাবি করা হয়েছে।তারা বলছে ক্যাসপারস্কি এ বিষয়ে আদৌ অবহিত ছিল না।
October 13, 2017
Design By © Tanzil . All rights & reserved By Tanzil Academy.